Forgive an Ex Day...

প্রাক্তনকে ক্ষমা করার দিন আজ।

আয়শা আকতার সুমি, ঢাবি। | প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০২০ ১৯:১৯; আপডেট: ১৭ অক্টোবর ২০২০ ১৯:৪০

প্রতীকী ছবি
 
ফুরানোর আগে বোধহয় এসবই ঘটে,
অনাকাঙ্ক্ষিত,অস্পষ্ট, অযাচিত ঘটনা।
তারপর,
তোমার কর্ম আমার সিদ্ধান্ত,
৭ বছরের যত্নে অযত্নে সয়ে যাওয়া গল্পের
পরিসমাপ্তির মাধ্যমে আজীবনের ভার
সৃষ্টিকারী গল্পের প্রতিষ্ঠা।
উর্ধ্বমূখী ঘুড়িকে যখন নাটাই টেনে নিচে
নামিয়ে আনতে চায়,
ভুল সময়ে ভুল টানে ছন্দের পতন তখন
বিচ্ছেদ ঘটায়।
 
প্রচলিত দিবসের সঙ্গে দিন দিন উদ্ভব হচ্ছে নতুন কিছু দিবস। তরুণদের কাছে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে দিবস গুলো, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং এর যুগে যা ছড়িয়ে পড়ছে হরহামেশাই। আর সেগুলো নিয়ে মতামত বা উদযাপন দেখা যাচ্ছে নিজেদের মুখবই এর নীল সাদা পর্দায়। ২০১৮ সাল থেকে যাত্রা শুরু এই বিশ্ব প্রাক্তন দিবসের। আন্তর্জাতিকভাবে সব দেশে স্বীকৃত না হলেও সাম্প্রতিক সময়ে ১৭ অক্টোবর-এ দিবসটি এলে আলোচনায় থাকে। "প্রেম" শব্দটি শুরু হয় দুটি মানুষের আঁকানো কিছু রং বেরংয়ের স্বপ্ন থেকে। শুরুর মত উত্তেজনা, এডভেঞ্চার, বারবার একই মানুষে হারিয়ে যাওয়া সবকিছুই খুবই স্বাভাবিক এবং প্রাকৃতিক। তবে দুটি মানুষের চলার এই এক পথ আলাদা হয়ে যায় বিবিধও কারণে। একটা সম্পর্কে থাকা বা না থাকার সিদ্ধান্ত দুইজনেরই সমান। তবে এই বিশেষ একটি ক্ষেত্রে মেয়েদের অবস্থা জলে কুমির, ডাংগায় বাঘ টাইপের। সম্পর্ক আর টক্সিসিটি বিষয় দুইটি এখন সব মিলিয়ে বেশ ভালো একটি কম্বিনেশন। তবে সম্মানের জায়গায় এগিয়ে থাকে এমন সম্পর্কগুলোকে আইডল মেনেই বিপরীত দিকের সম্পর্ক গুলোতে মেয়েদের অবস্থান নিয়ে আমাদের আজকের কিছু কথা।
 
একটি সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার ক্ষেত্রে মেয়েদের মানসিক কিছু ব্যাপার কাজ করে। তাদের ইমোশনাল এটাচমেন্ট,নির্ভরতার জায়গা,অভ্যাস আর লোকে কি বলবে সব মিলিয়ে গুলিয়ে ফেলে একটি মেয়ে তার সিদ্ধান্ত। এখানে মনোবল দৃঢ় করে এগিয়ে যেতে হবে মেয়েদের। যা যাওয়ার ছিল তা চলে যায়ই যেকোন ভাবে। আর মানুষ কি ভাববে এই বিষয়ে ভ্রুক্ষেপ না করে এগিয়ে যেতে হবে নিজের সম্মান,মনোবল নিয়ে। অনেকেরই তাদের সাবেকের প্রতি রাগ, ক্ষোভ, অভিমান অথবা প্রতিহিংসা রয়ে যায়। কাউকে ক্ষমা করার সবচেয়ে সুন্দর দিক হলো নিজের মানসিক প্রশান্তি। সাইকোলজিক্যাল ওয়ে তে বিশ্লেষনে গেলে দেখা যায় নারীরা বিভিন্ন মানসিক সমস্যায় ভুগে থাকে। যেমনঃ প্যানিক এটাক, এংজাইটি নিউরোসিস, ডিপ্রেসিভ ডিসর্ডার, বর্ডার লাইন পার্সোনালিটি ডিসর্ডার, অটিজম, এডিএইচডি, লার্নিং ডিসর্ডার ও মনোঃসংযোগের ঘাটতি। এই অভিযোগ ও ঘৃণাকে মুছে ফেলে দেয়ার জন্য এ দিবসের আবির্ভাব। প্রাক্তনকে ক্ষমা করে দেয়ার দিন- এর উদ্দেশ্য চলে যাওয়া বা হারিয়ে যাওয়া পছন্দের মানুষের প্রতি যেন ক্ষমাশীল হওয়া যায় এবং সবাই যেন সকল অভিযোগ ভুলে সম্মানের চোখে তাকে দেখে। আর সুন্দর ভবিষ্যত কামনা করে ও নিজের সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়া। অতীততে ভুলে সামনে যাওয়ার পথে দিনটি এক শুভ বার্তা। সবাই যেন দিনটিতে প্রাক্তন মানুষটাকে জানাতে পারে, 'ক্ষমা করে দিলাম' সেটিও নিজের ভালো থাকার জন্যই।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top