বউয়া; বাংলার এক ঐতিহ্যবাহী খাবার।

আয়েশা আক্তার সুমি, ঢাবি। | প্রকাশিত: ১০ ডিসেম্বর ২০২০ ১৫:১৭; আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০২০ ১৬:৩৭

ছবিঃ সংগৃহীত

প্রাচীন যুগের কবি কালিদাস বলেছেন ‘আশ্বাস : পিশাচো হপি ভোজনেন’। অর্থাৎ পিশাচকেও ভোজন দ্বারা বাগে আনা যায়। কথাটা হাস্যরসাত্মক হলেও বাস্তব সত্যের খুব কাছাকাছি।
বাংগালী ভাত পাগল সেই জায়গা থেকে গ্রামীন অঞ্চলের আগে থেকে চাল ঝেড়ে যে কণা গুলো পড়ে থাকতো সেগুলো রান্না করে চালিয়ে দেয়া হত নাস্তজাতীয় খাবার হিসেবে।

বিক্রমপুরে এর জনপ্রিয়তা ব্যাপক। এ অঞ্চলে ঘরে ঘরে সকাল বেলার নিত্য চিত্র এটি। হরেক রকমের ভর্তা দিয়েই এটি পরিবেশন করা হয়। তবে একবার যে স্বাদ গ্রহণ করবে আজীবনই এর নাম নিবে। আর সে যদি ঝাল খোর হয় তাহলেতো কোন কথাই নেই তাহলে সে বউয়ার স্বাদটা পুরোপুরি পাবে।

ছোট বেলায় মা খালাদের দেখা যেতো চাল ঝেড়ে ভাঙা চাল (খুদ) আলাদা করা হতো। আর এইটা সাধারণত ঘরের বউরাই করতেন তাই এই জন্যই নাম হলো বউয়া বা খুদের বউয়া।

আমাদের গ্রাম বাংলায় এই খাবারের প্রচলন ছিল সেই অনেককাল আগে থেকেই। সকাল হলে প্রায় দিনই এই খুদের ভাত খাওয়া হতো। চলুন দেখি কিভাবে রান্না করা যায়।

উপকরণ
খুদের চাল বা ভাঙা চাল এক কেজি
পেঁয়াজ কুচি এক কাপ
দারুচিনি দুই টুকরা
এলাচি দুই তিনটে
আদা বাটা দুই চা চামচ
রসুন বাটা এক চা চামচ
কাঁচা মরিচ কয়েকটা
হলুদ গুঁড়া হাফ চা চামচ (এটা না দিলেও চলে, শুধু রং করার জন্য। যারা সাদা খেতে চান তাদের এই হলুদ গুঁড়া দেয়ার দরকার নেই)
লবণ পরিমাণমতো
তেল এক কাপের কম
পানি

প্রণালি
খুদের চালগুলো ভাল করে ধুয়ে নিয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। হাঁড়িতে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ কুচি, আদা, রসুন, কাঁচা মরিচ, দারুচিনি, এলাচি ও সামান্য লবণ দিয়ে ভাল করে ভাঁজুন। পেঁয়াজ বাদামি হয়ে আসলে ধুয়ে রাখা খুদের চালগুলো দিয়ে দিন। ভাল করে মিশিয়ে নিন। সামান্য হলুদ দিন। ভাজা হয়ে গেলে এবার পানি দিন। মোটামুটি চালের ওপর এক ইঞ্চি পানি দিতে হবে (যারা পোলাউ রান্না করেন তাদের কাছে এই অনুমানটা খুবই সহজ)। এবার ঢাকনা দিয়ে দিন। তবে এর আগে পানিতে লবণ দেখুন। পানি কটা বা একটু লবণ বেশি হতে হবে। চাল বাড়লে এটা ঠিক হয়ে যাবে। মাধ্যম আগুনের আঁচে মাঝে মাঝে ঢাকনা উল্টে দেখে নিতে ও নেড়ে দিতে পারেন। শেষের দিকে দমে রেখে দিতে পারেন। পানি কম কিন্তু চাল নরম হয় নাই, এমন হলে আরও সামান্য পানি দিয়ে ভালো করে নেড়ে দিতে পারেন। ব্যস, হয়ে গেল বউ খুদি। আর হ্যাঁ যে কোন ভর্তা দিয়ে খেতে ভুলবেন না।



বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top