দাঁতের যত্ন প্রতিদিন।

ফারজানা নিপা, ঢাবি। | প্রকাশিত: ১২ ডিসেম্বর ২০২০ ১২:১৭; আপডেট: ১৯ ডিসেম্বর ২০২০ ১৯:৫১

ছবিঃ ইন্টারনেট

মোমের পুতুল ঘুমিয়ে থাকুক দাঁত মেলে আর চুল খুলে—
টিনের পুতুল চীনের পুতুল কেউ কি এমন তুলতুলে?’

সুকুমার রায়ের কাব্যের পুতুলের মতো দাঁত ‘মেলে’ কেউ ঘুমায় না ঠিকই, তবে দাঁত ‘মেলে’ হাসে তো নিশ্চয়ই। দাঁত সুস্থ সুন্দর হলে তবেই না হাসিটা সুন্দর দেখায় আর সুন্দর হাসির ঝলকে সবারই মন ভরে যায়। তাছাড়া খাবার টেবিলে নিজেকে দন্তহীন অবস্থায় মনে মনে একবার বসিয়েই দেখুন।
সুস্থ, সুন্দর দাঁতের জন্য কী চাই—নিয়মিত যত্ন আর অভ্যাস। সামান্য কিছু কাজ দৈনন্দিনতায় যোগ করে নিলেই দাঁতের সব সমস্যা থেকে মেলবে মুক্তি।

১। প্রতিদিন দাঁত ব্রাশ করুনঃ প্রতিদিন যত্ন সহকারে দু'বেলা রাতে ঘুমানের আগে এবং সকালে নাস্তার পরে ব্রাশ করলে দাঁতের স্পট পড়ার থেকে মুক্তি মিলবে।দু'বেলা শুধু ব্রাশ করলেই হবে না ভালো টুথপেস্ট এবং ব্রাশ থাকতে হবে।

২। দাঁতের ক্ষয়রোধে হলুদঃ হলুদের রয়েছে নানান গুণ। এটি শরীরের বর্ণ উজ্জ্বল করে, রক্ত পরিষ্কার রাখে সাথে সাথে দাঁতকেও সৌন্দর্যময় করে তোলে। নিয়মিত সামন্য লবণ, হলুদ এবং লেবুর রস দিয়ে দিয়ে পেস্ট তৈরি করে ২ মিনিট দাঁতে লাগালে দাঁতের ক্ষয়রোধ হয় এবং দাঁত শক্ত ও মজবুত রাখে।

৩। দাঁতের ক্ষয়রোধে নারকেল তেলঃ রুপচর্চায় নারকেল তেল নিয়মিতই ব্যবহার করা হয়। কিন্তু অনেকেই জানেন না দাঁতের ক্ষয়রোধ করার মত দিকটিতেও নারকেল তেলের ভূমিকা রয়েছে। দুই চামচ নারকেল তেল প্রতিদিন দাঁতে দশ মিনিট ধরে ব্যবহার করে তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে কুলকুচি করলে দাঁতের ক্ষয়রোধ থেকে মুক্তি সম্ভব।

৪। অ্যাসিডিক খাবার থেকে সাবধানঃ যেসব খাবারে অতিরিক্ত অ্যাসিড রয়েছে যেমন-কোমল পানীয়,কৃত্রিম সস,কৃত্রিম ফলের রস এসব খাবার দাঁতের জন্য ক্ষতিকর। এগুলো দাঁতের অ্যানামেলকে নষ্ট করে দেয় এবং দাঁতে স্পট দেখা দেয়।তাই এসব খাবার থেকে যতটা সম্ভব দূরে থাকতে হবে।

৫। দাঁতের ক্ষয়রোধে লেবুর রসঃ যদিও বলা হয়ে থাকে অ্যাসিডিক খাবার দাঁতের ক্ষয় করে তারপরও সাইট্রিক এসিডের উৎস লেবুকে দাঁত ক্ষয়রোধের ওষুধ হিসেবে ধরা হয়।১চামচ লেবুর রস এবং এক চিমটি লবণ দিয়ে দাঁত পরিষ্কার করলে দাঁত উজ্জ্বল থাকে এবং সাদা দাগ থাকে না।

৬। কুলকুচি করার নিয়মঃ কুলকুচি করার জন্য এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে এক চিমটি লবণ মিশিয়ে নিন। যেকোনো খাবার খাওয়ার পরই ভালোভাবে এটি করুন।



বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top