ভালোবাসি মা !

স্বর্ণা, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। | প্রকাশিত: ১২ নভেম্বর ২০২০ ০০:১২; আপডেট: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৯:২৩

প্রতীকী ছবি

"মা" শব্দটি খুব ছোট। কিন্তু এই শব্দটির মাঝেই মিশে আছে এক গভীর টান। সেই ছোটবেলায় প্রথম ছোট আঙুল গুলো আকড়ে ধরেন তিনি। এরপর থেকেই যেন তার আত্মত্যাগ এর শুরু। সন্তানের যত্নে নিজের মনের ইচ্ছাগুলো এক কোনায় সরিয়ে রাখেন। সন্তান যেনো ভাল থাকে এ জন্য নিজের ভাল লাগা গুলোকে বিসর্জন দেন প্রতিনিয়ত। নিজের সন্তান এর জন্য একজন মা গড়ে তোলেন নিজের মত করে একটি পৃথিবী। সেখানে থাকেন শুধু তিনি এবং তার সন্তান। তখন যেনো তার দুটি পৃথিবী। একটিতে সবাই থাকলেও অন্যটিতে মা এবং তার সন্তান ছাড়া কেউ নেই। এই পৃথিবীর জন্য মা, সকলের সাথে থাকা পৃথিবীকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকেন। সেই পৃথিবীতে প্রতিনিয়ত তার কল্পনা দিয়ে তার ছোট্ট বাবুটিকে সাজাতে থাকেন।

তার কল্পনার রাজপুত্র বা রাজকন্যা হয়ে উঠে তার সন্তান। সেই কল্পনার রাজপুত্র বা রাজকন্যা প্রথম যেদিন "মা" বলে ডাকে, সেদিন যেন তার জীবনের সবচেয়ে পরিপূর্ণ দিন হয়ে উঠে। যেন তার স্বর্গ তার হাতের নাগালে এসে পড়ে। সন্তান বড় হতে থাকে। সে হাটতে শেখে। গুটি গুটি পায়ে মা কে এসে জড়িয়ে ধরে। মায়ের যেনো খুশির কোনো অন্ত নেই। আবার সে যখন হাটতে গিয়ে পড়ে যায়, ব্যথা পায়, তখন সেই আঘাতটা পুরোপুরি পায় মা। এভাবেই সন্তানের আধো আধো হাটা, গুটিগুটি পায়ে চলার মাঝে নিজের জীবনকে খুজে পান একজন মা। সন্তান প্রথম যেদিন স্কুলে যায়, সেদিন সবচেয়ে বেশি উদ্বিগ্ন থাকেন তিনি। অজস্র চিন্তা মাথায় ভর করে তার। তার সন্তান নতুন পরিবেশে যাচ্ছে, সেখানে সবাই নতুন মানুষ। তারা কি তার সন্তানকে তার মতো করে গ্রহন করবে! আর তাইতো সন্তান বাসায় না ফেরা পর্যন্ত অস্হির থাকেন তিনি। বাসায় ফেরা মাত্রই তার আগ্রহের শেষ থাকে না। কি হলো স্কুলে এ নিয়ে যেন তার আগ্রহের শেষ নেই। এভাবেই তিনি আগলে রাখেন তার আদরের পৃথিবীকে।

তার সন্তান বড় হতে থাকে, নতুন নতুন পরিবেশে মিশতে থাকে, কিন্তু মা এর কাছে সে সেই গুটি গুটি হাত ধরে থাকা বাচ্চাটি। যখন তিনি সন্তানকে নিয়ে কোথাও যান, তখনো শক্ত করে ধরে থাকেন, যেনো তার সন্তান আঘাত না পায়। একটা সময় আসে, যখন তার ছোট্ট বাবুটি অনেক বড় হয়ে যায়। সে একা একা সব কাজ করতে পারে। হয়তো সেও আর এসে তার মা এর কাছে সাহায্য চায় না। আর এসে আগের মতো আবদার করে না। মা তার সন্তান এর দিকে তাকায়, ভাবে আসলেও তার সন্তান অনেক বড় হয়ে গেছে। আর সন্তানের এখন তার সাহায্যের কথা মনে হয় না। আর তো তার বাবাই এসে তাকে বলে না কোনো আবদার এর কথা, আসলেই অনেক বড় হয়ে গেছে সে। তার সন্তানকে নিয়ে গড়ে ওঠা পৃথিবীটার খাতায় সব স্মৃতিগুলো ভিড় করতে থাকে। তার সন্তানের আধো আধো ডাকগুলো মনে আসতে থাকে। পড়ে যাওয়ার ভয়ে শক্ত করে ধরা হাতের স্পর্শ যেন মা অনুভব করেন আনমনে। হয়তোবা দুই এক ফোটা অশ্রুও জমে চোখের কোনে। কোনো কষ্টের অশ্রু নয় এটি, বরং আনন্দের অশ্রু। তার সন্তানকে এমন স্বাবলম্বী দেখার স্বপ্নই তো দেখতেন তার নতুন পৃথিবীতে। এমনই একসময় তার সন্তান এসে বসে তার পাশে, তার কোলে মাথা রাখে যেমনটা ছিল সে, এবং বলে ওঠে "ভালবাসি মা" এমনভাবেই ঘিরে থাক সকল মায়ের প্রতি তার সন্তানের ভালবাসা।



বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top